জাতীয় পার্টির প্রয়াত চেয়ারম্যান ও সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদের বাল্য বন্ধু ও বড়খাতা ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান আজিজার রহমান খেরু মিয়া ইন্তেকাল করেছেন। ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন। বৃহস্পতিবার (১২ ডিসেম্বর)  হাতীবান্ধা উপজেলার  রমনীগঞ্জ গ্রামের তার নিজ বাস ভবনে বার্ধক্যজনিত কারনে ইন্তেকাল করেন। মৃত্যুকালে তার বয়স ছিলো ৯৫ বছর। তিনি ৯ ছেলে ৬ মেয়েসহ নাতি-নাতনি ও অনেক শুভাকাক্ষী রেখে যান। খেরু মিয়া লালমনিরহাট জেলার হাতীবান্ধা উপজেলার বড়খাতা ইউনিয়নের রমনীগঞ্জ গ্রামের বাসিন্দা। তিনি বড়খাতা ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান ছিলেন। হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদের মৃত্যুর পর তার সাথে কাটানো কলেজ জীবনের স্মৃতিচারণ করছিলেন বন্ধু আজিজার রহমান খেরু মিয়া।

জানা গেছে, এরশাদ ১৯৪৬ সালে ভারতের দিনহাটা থেকে এসেছিলো। রংপুর কারমাইকেল কলেজে ভর্তি হওয়ার পরই এরশাদের সাথে আমার বন্ধুত্ব গড়ে উঠেছিলো। এরশাদ মেট্রিক (এসএসসি) থার্ড ডিভিশনে  পাস করার পর তার মাঝে জেদ প্রচণ্ড কাজ করতো। সে ভালো করে লেখাপড়া শুরু করে এবং ফাস্ট ডিভিশনে ইন্টারমেডিয়েট (এইচএসসি)  পাস করেছিলো। কলেজে পড়া অবস্থায় তার সেনাবাহিনীর প্রতি বিশেষ দুর্বলতা কাজ করতো। ফুটবল খেলতে খুব পছন্দ করতো আর ভালো ফুটবল খেলত সে কারণে তাকে অনেকেই রংপুর টাউন ক্লাবের হয়ে ফুটবল খেলার জন্য খেলোয়াড় হিসেবে ভাড়া করে নিয়ে যেতো। তার ভাতিজা সাজুদার রহমান বলেন, আগামীকাল শুক্রবার (১৩ ডিসেম্বর) সকাল ১০ টায় উপজেলার রমনীগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে তার নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। পরে তাকে পারিবারিক কবর স্থানে দাফন করা হবে

সংশ্লিষ্ট সংবাদ